স্বাগতম জেলা পরিষদ, মৌলভীবাজার। টেলিফোন ও ফ্যাক্স নং : ০৮৬১-৫৩২৬১ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অফিস : ০৮৬১-৫৩১২৪ ফ্যাক্স নং : ০৮৬১-৬৪৯৪২ জেলা পরিষদের ই-মেইল : zpmlv@yahoo
সরকারের সম্পর্ক

জেলা পরিষদের ব্যাপারে জাতীয় সরকারের পর্যাপ্ত ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব রয়েছে। সরকারের জারিকৃত জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে। সরকার জেলা পরিষদের জন্য বিভিন্ন বিষয়ে আইন, বিধি ও প্রবিধান তৈরী করতে পারেন, যেমন-

১) সরকার জেলা পরিষদ সংক্রান্ত আইন, বিধি, প্রবিধি, গেজেট, প্রজ্ঞাপন জারি করেন।

২) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ১৭ হতে ২৬ অনুযায়ী পরিষদের প্রত্যেক ওয়ার্ডের জন্য সরকার তথা নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ভোটার তালিকা প্রণয়নে নির্বাচন আয়োজন ও পরিচালনা এবং এ সংক্রান্ত আপত্তীর নিষ্পত্তি করতে পারবেন।

৩) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ২৭ ও ২৯ অনুযায়ী সরকার জেলা পরিষদের কার্যাবলী নিরুপন, হস্তান্তর নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

৪) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৩৬ অনুযায়ী সরকার পরিষদের নির্মাণ কাজের পরিকল্পনা, আনুমানিক ব্যয়ের হিসাব প্রণয়ন, প্রযুক্তিগত ও প্রশাসনিক অনুমোদনের বিধান করবেন।

৫) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৩৯ অনুয়ায়ী সরকার প্রত্যেক পরিষদের জন্য সরকারের উপসচিব পদমর্যাদার একজন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, একজন সচিব এবং অন্যান্য কর্মকর্তা নিয়োগ করবেন।

৬) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৪১ অনুযায়ী সরকার পরিষদের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের চাকুরীর শর্তাবলী, বেতনক্রম, পদসমূহের জন্য তফসিল, নিয়োগের যোগ্যতা ও অন্যান্য নীতিনির্ধারণ করবেন।

৭) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৪৫ অনুযায়ী জেলা পরিষদের বাজেট সরকার অনুমোদন করবেন।

৮) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০এর ধারা ৪৬ অনুযায়ী প্রত্যেক জেলা পরিষদ তার বার্ষিক ব্যয় ও ব্যয়ের হিসাব পরবর্তী অর্থ বছরের ৩১ শে ডিসেম্বরের মধ্যে সরকারের নিকট প্রেরণ করবেন।

৯) জেলা পরিষদ আইন,২০০০ এর ধারা ৪৭ অনুযায়ী হিসাব নিরীক্ষার পর নিরীক্ষাকারী কর্তৃপক্ষ একটি পূর্ণাঙ্গ নিরীক্ষা প্রতিবেদন সরকারের নিকট পেশ করবেন।

১০) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৪৮ অনুযায়ী পরিষদের উপর ন্যস্ত বা মালিকানাধীন সম্পত্তির ব্যবস্থাপনা, রক্ষণাবেক্ষন ও উন্নয়ন এবং হস্তান্তর নিয়ন্ত্রণ সরকারী বিধি দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

১১) সরকারের পূর্বানুমোদনক্রমে জেলা পরিষদ আইন – ২০০০ এর ৫১ ও ৫২ অনুযায়ী দ্বিতীয় তফসিলে উল্লেখিত সকল অথবা যে কোন কর, রেইট, ফি এবং টোল নির্ধারিত পদ্ধতিতে আরোপ ও আদায়,কর সম্পর্কিত বিজ্ঞপ্তি, কর তফসিল প্রণয়ন করতে পারবেন।

১২) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৬১ অনুযায়ী সরকার পরিষদ বাতিল ঘোষনা করতে পারবেন।

১৩) জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ এর ধারা ৬২ অনুযায়ী স্থানীয় সরকার সংক্রান্ত বিষয়ে গবেষণা এবং পরিষদের সদস্য ও কর্মচারীদের প্রশিক্ষণের জন্য সরকার প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান স্থাপন করবেন।

১৪) জেলা পরিষদ আইন ২০০০ এর ধারা ৭৪ অনুযায়ী পরিষদ সরকারের পূর্বানুমোদনক্রমে আইন বা বিধি বিধানের সাথে সামঞ্জস্য রেখে প্রবিধান প্রণয়ন করতে পারবেন।

১৫) জেলা পরিষদ আইন ২০০০ এর ধারা ৭৫ অনুযায়ী সরকার পরিষদের সকল বা যে কোন ক্ষমতা সরকারী গেজেটে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে যে কোন ব্যক্তি বা কর্তৃপক্ষকে অর্পণ করতে পারবেন।

১৬) জেলা পরিষদ আইন ২০০০ এর ধারা ৮২ অনুযায়ী জেলা পরিষদ গঠিত না হওয়া পর্যন্ত জেলা পরিষদের কার্যাবলী সম্পাদনের জন্য সরকার একজন প্রশাসক নিয়োগ করতে পারবেন।